অনলাইনে পণ্য পরিবহনের ঠিকানা ‘ট্রাককোথায়’

প্রকাশঃ ০৫:৫৩ মিঃ, অক্টোবর ২৩, ২০১৮
Card image cap


টেকওয়ার্ল্ড প্রতিনিধি:

পণ্য পরিবহনের জন্য আপনাকে এখন আর ট্রাক স্ট্যান্ডে গিয়ে অথবা ট্রান্সপোর্ট কোম্পানির কাছে ধর্ণা দিতে হবে না। কারণ এখন ঘরে বসেই আপনি পেয়ে যাচ্ছেন আপনার পছন্দের ভাড়ার ট্রাকটি। গ্রাহকদের কথা মাথায় রেখে এমনই একটি সুবিধা দিয়ে এসেছে মোনিকো টেকনোলজিস লিমিটেড।

কোম্পানির উদ্যোগ truck.kothay.com এর ওয়েবসাইট অথবা অ্যাপের মাধ্যমে চাহিদা অনুযায়ী ট্রাকে পণ্য আনা নেওয়া করতে পারবেন গ্রাহকরা। একই সঙ্গে পণ্যবাহী ট্রাকটি কোথায় আছে কোন অবস্থায় আছে নোটিফিকেশনের মাধ্যমে তাও জানতে পারবেন তারা। 

এ বিষয়ে মোনিকো টেকনোলজিসের পরিচালক সাখাওয়াত সোবহান বলেন, তথ্যপ্রযুক্তিকে প্রান্তিক জনগণের কাছে পৌঁছে দিতে ২০০৯ থেকে মোনিকো টেকনোলজিস কাজ করছে। ফাইন্ডার জিপিএস ট্র্যাকিংয়ের দীর্ঘ ৯ বছরের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে ২০১৮  এর প্রথম দিকে ‘ট্রাককোথায়’ যাত্রা শুরু করে। এরই ধারাবাহিকতায় প্রযুক্তিকে মানুষের কল্যাণে ব্যবহারের জন্য এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

ওয়েবসাইট ও অ্যাপসটির ব্যবহার বিষয়ে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ধরুন আপনি ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে পণ্য পাঠাবেন। এজন্য প্রথমে আপনাকে truck.kothay.com এর ওয়েবসাইট অথবা অ্যাপের ম্যাধমে একটি ট্রিপ অ্যাড করতে হবে। এ সময় আপনি কত টাকা ভাড়া দিতে চান সেটিও উল্লেখ করে দিতে হবে।

এজন্য পণ্য কোথায় থেকে ট্রাকে তোলা হবে ও কোন ক্যাটাগরির কী পরিমাণ পণ্য ধারণ ক্ষমতার ট্রাক চান সেটিও উল্লেখ করতে হবে।

এসব বিষয় নির্ধারণ করার সঙ্গে সঙ্গে ট্রাক কোথায় এবং আশপাশের অবস্থানকারী ট্রাক মালিক অথবা চালকের (যার কাছে অ্যাপটি ইনস্টল করা আছে) কাছে নোটিফিকেশন চলে যাবে। এরপর সেই চালক বা মালিক ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে ট্রিপ থাকলে এবং ভাড়া কত চান তা লিখে পোস্ট করে রাখবেন।

এভাবে অ্যাপ ব্যবহারকারী অনেক চালক বা মালিকের পোস্ট করা একাধিক ভাড়ার তালিকা তৈরি হবে। তখন পণ্য মালিক বা গ্রাহক নির্ধারণ করবেন তিনি কোন ট্রাকটিতে তার পণ্য চট্টগ্রামে পাঠাতে চান।

এরই মধ্যে পণ্য মালিক বা গ্রাহকও দেখে নিতে পারবেন কোন চালক দেশের কোন কোন জায়গায় কতগুলো ট্রিপ সম্পন্ন করেছেন। পাশাপাশি জানা যাবে ট্রাকের কন্ডিশনও। এরপর কনফার্ম করলেই নির্ধারিত ট্রাকটি সঠিক সময়ে গ্রাহকের কাছে পণ্য সংগ্রহ করতে পৌঁছে যাবে। সেখান থেকে বোঝাই করে শুরু হবে গন্তব্যের উদ্দেশে যাত্রা।

উদ্যোক্তা কোম্পানি মোনিকো টেকনোলজিস লিমিটেড বলছে, ‘ট্রাককোথায়’ এর মাধ্যমে দেশের যেকোনো স্থান থেকে পণ্য পাঠানোর পাশাপাশি পছন্দমতো ভাড়ার ট্রাকও নির্ধারণ করা যায়। অ্যাপের মাধ্যমে বিভিন্ন কোম্পানির রাইড শেয়ারিং অর্থাৎ প্রাইভেট কার, মোটরসাইকেলে চলাচলের ব্যবস্থা থাকলেও পণ্য নিয়ে দুর্ভাবনা পরিত্রাণের এই সেবা এটাই প্রথম।

অ্যাপটি পেতে অ্যান্ড্রয়েড ফোনের গুগল অ্যাপস স্টোর থেকে ডাউনলোড ও ইনস্টল করতে হবে।  

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মোনিকো টেকনোলজির যানবাহন ট্র্যাকিং সিস্টেম ফাইন্ডারের সফলতার পর পণ্য পরিবহনে ট্রাক, লরি ও কার্ভাড ভ্যানের মালিক ও চালকের সঙ্গে পণ্য মালিক বা গ্রাহকের যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে কাজ করছে ‘ট্রাককোথায়’।

এর মাধ্যমে সুবিধামতো ভাড়ায় পণ্যের মালিকরা যেমন ট্রাক পাবেন সহজেই পাশাপাশি মালামাল পৌঁছে দিয়ে খালি ট্রাক নিয়েও ফেরত যাওয়ার সংখ্যাও কমে যাবে। অ্যাপ থেকে চালক বা মালিক সহজেই দেখতে পাবেন কোথায় তার ট্রিপ আছে।

এসব সুবিধা ছাড়াও ‘ট্রাককোথায়’ এর কল সেন্টারে (09678404040) ফোন করে সব ধরনের তথ্য সেবা পাওয়া যাবে। মিলবে ট্রিপের খোঁজও।

অনলাইনভিত্তিক পণ্য পরিবহন সেবার বিষয়ে মোনিকোর পরিচালক সাখাওয়াত সোবহানের ভাষ্য, বর্তমানে বিশ্বজুড়ে লোকেশনভিত্তিক সার্ভিসের জয়জয়কার। বাংলাদেশেও এটি এগিয়ে যাচ্ছে। ‘ট্রাককোথায়’ দেশে সব ধরনের ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান, পিক আপের অনলাইন ভাড়ার প্ল্যাটফর্ম নিয়ে কাজ করছে।

‘ইতোমধ্যে অনেক ট্রাকচালক আমাদের অ্যাপ ব্যবহার করে খুব সহজেই ট্রিপ পাচ্ছেন, এমনকি ফিরতি ট্রিপ নিয়েও তাদের আর চিন্তা করতে হচ্ছে না। একইভাবে ট্রাক স্ট্যান্ডে না গিয়েই পছন্দসই ট্রাক পেয়ে যাচ্ছেন পণ্য মালিকরা। এ নিয়ে বেশ ভালো সাড়া পাচ্ছি,’ যোগ করেন তিনি।

সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ৮১ বার


মুখোমুখি

Card image cap
‘বাংলাদেশকেই হিটাচি পণ্যের বাজার হিসেবে অধিক সম্ভাবনাময় দেশ বলে মনে হয়’ - চেন টেক ব্যঙ্ক

হিটাচি হোম ইলেকট্রনিক্স এশিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব চেন টেক ব্যঙ্ক প্রকৃতঅর্থে একজন বয়োজষ্ঠ্য, কিন্তু তার জ্ঞানের পরিধি এবং অক্লান্ত পরিশ্রম তার বয়সকেও হার মানিয়ে দেয়। আর সে কারণেই তিনি হয়ে ওঠেন এক অদম্য যুবকের সমতুল্য। তার আধুনিক ব্যবসায়িক চিন্তাধারা এশিয় অঞ্চলে হিটাচি পণ্য ও সেবার  বাজারের ব্যাপক প্রসার ঘটাবে বলে আশা করা যাচ্ছে। বাংলাদেশে হিটাচি কোম্পানির ডিস্ট্রিবিউটর ইউনিক বিজনেস সিস্টেম লিমিটেড কর্তৃক আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে মাসিক টেকওয়ার্ল্ড পত্রিকার প্রতিনিধির জনাব চেন টেক ব্যঙ্ক এর সাক্ষাৎকার গ্রহণের সুযোগ হয়, যার উল্লেখযোগ্য অংশটুকু এখানে তুলে ধরা হলোঃ

প্রশ্নঃ সাধারণ