http://challenge.gov.bd/wic) রয়েছে। আইডিয়া জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ৩১ শে জুলাই ২০১৮। কার্যকর ও বাস্তবায়নযোগ্য শ্রেষ্ঠ উদ্ভাবনসমূহ প্রতিযোগিতায় এগিয়ে যাবে চূড়ান্ত মনোনয়নের পথে। বিজয়ী প্রকল্পসমূহ পাইলট আকারে বাস্তবায়নে এটুআই প্রোগ্রাম থেকে ২৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত অনুদান প্রদান করা হবে।

কর্মশালায় গ্রামীণফোনের হেড অফ বিসনেস ইনোভেশন সৈয়দ আশিকুর রহমান, টেলেনর গ্রুপের গ্লোবাল কমার্শিয়াল হেড অফ ওয়াওবক্স ফারহানা ইসলাম, এটুআই প্রোগ্রাম, বিভিন্ন উন্নয়ন সহযোগী প্রতিষ্ঠান, এটুআই প্রোগ্রামের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাগণ ও বিভিন্ন গণমাধ্যম কর্মী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

" >

উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প-২০১৮ সফলভাবে বাস্তবায়নের জন্য সচেতনতামূলক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

প্রকাশঃ ০২:১৯ মিঃ, জুলাই ১৭, ২০১৮
Card image cap


টেকওয়ার্ল্ড প্রতিনিধি:

১৫ জুলাই, ২০১৮, রবিবার একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রাম এর আয়োজনে আগারগাও এর আইসিটি টাওয়ারের বিসিসি অডিটোরিয়াম  এ “উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প ২০১৮” সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য একটি কর্মশালার আয়োজন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) মোঃ মামুন-আল-রশীদ। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের যুগ্ম সচিব এবং এটুআই প্রোগ্রামের প্রকল্প পরিচালক জনাব মোঃ মুস্তাফিজুর রহমান (পিএএ), ইউএনডিপি-র এসিস্টেন্ট কান্ট্রি ডিরেক্টর শায়লা খান, বুয়েটের ইলেকট্রনিক ও ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. সিলিয়া শাহনাজ, মোহাম্মাদিয়া গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুবানা হক। অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ সরকারের উপ সচিব এবং এটুআই প্রোগ্রামের ইনোভেশন স্পেশালিস্ট শাহিদা সুলতানা। কর্মশালায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় এবং সংস্থা থেকে ১০০-র অধিক নারী উদ্যোক্তা এবং শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

নারীদের উইমেন্স ইনভেশন ক্যাম্প ২০১৮ সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্যই আজকের এই কর্মশালার আয়োজন করা হয়। কিভাবে এখানে অংশগ্রহণ করা যাবে তা সম্পর্কে কর্মশালায় দিকনির্দেশনা প্রদান করা হয়। কর্মশালায় নারীরা তাদের উদ্ভাবনী ও সৃজনশীল ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যেম দেশের বিবিধ ক্ষেত্রে জাতীয় সমস্যা সমাধানে কিভাবে এগিয়ে আসতে পারবে তা সম্পর্কে দিকনির্দেশনা দেওয়া হয়। নারীর উদ্ভাবনী ও সৃজনশীল ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যেম নারীদের দ্বারা দেশের বিবিধ ক্ষেত্রে জাতীয় সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে এটুআই এবং মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যৌথ উদ্যোগে ২০১৬ সাল থেকে প্রতিবছর উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প আয়োজন করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় ‘নারীর দুর্ভোগ নিরসনে নারীর উদ্ভাবন’- প্রতিপাদ্য বিষয়ে ২০১৭ সালে আয়োজন করা হয়েছে ‘উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প-২০১৭’।  এই প্রতিযোগিতার মূল উদ্দেশ্য হলো সমাজে নারীদের গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা চিহ্নিত করা এবং একটি উন্মুক্ত প্রতিযোগিতার মাধ্যমে নারীদের দ্বারা এগুলোর উদ্ভাবনী সমাধানের ব্যবস্থা করা।

উক্ত প্রতিযোগিতায় নারীদের বিরুদ্ধে সাইবার অপরাধ, কর্মজীবী মায়েদের বিড়ম্বনা, নারীর সম্ভাবনাময় দক্ষতার ব্যবহার এবং বৃদ্ধ নারীদের বিবিধ সমস্যা এ ৪ টি ক্ষেত্রের আইডিয়া প্রাধান্য পায়। ২০১৬ ও ২০১৭ এর সফলতার ধারাবাহিকতায় চলতি বছরেও এটুআই এবং মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত হতে যাচ্ছে “উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প-২০১৮”। চিহ্নিত সেক্টরের সমস্যা সমাধানে যে কোন বয়সের নারীদেরকে ব্যক্তিগতভাবে বা দলগতভাবে প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে অনলাইনে চিহ্নিত সমস্যাসমূহের উদ্ভাবনী সমাধান প্রদানের জন্যে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। আইডিয়া জমা দিতে এবং বিস্তারিত তথ্য জানতে প্রতিযোগিতার একটি ওয়েবসাইট (http://challenge.gov.bd/wic) রয়েছে। আইডিয়া জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ৩১ শে জুলাই ২০১৮। কার্যকর ও বাস্তবায়নযোগ্য শ্রেষ্ঠ উদ্ভাবনসমূহ প্রতিযোগিতায় এগিয়ে যাবে চূড়ান্ত মনোনয়নের পথে। বিজয়ী প্রকল্পসমূহ পাইলট আকারে বাস্তবায়নে এটুআই প্রোগ্রাম থেকে ২৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত অনুদান প্রদান করা হবে।

কর্মশালায় গ্রামীণফোনের হেড অফ বিসনেস ইনোভেশন সৈয়দ আশিকুর রহমান, টেলেনর গ্রুপের গ্লোবাল কমার্শিয়াল হেড অফ ওয়াওবক্স ফারহানা ইসলাম, এটুআই প্রোগ্রাম, বিভিন্ন উন্নয়ন সহযোগী প্রতিষ্ঠান, এটুআই প্রোগ্রামের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাগণ ও বিভিন্ন গণমাধ্যম কর্মী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ৯২ বার


মুখোমুখি

Card image cap
‘বাংলাদেশকেই হিটাচি পণ্যের বাজার হিসেবে অধিক সম্ভাবনাময় দেশ বলে মনে হয়’ - চেন টেক ব্যঙ্ক

হিটাচি হোম ইলেকট্রনিক্স এশিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব চেন টেক ব্যঙ্ক প্রকৃতঅর্থে একজন বয়োজষ্ঠ্য, কিন্তু তার জ্ঞানের পরিধি এবং অক্লান্ত পরিশ্রম তার বয়সকেও হার মানিয়ে দেয়। আর সে কারণেই তিনি হয়ে ওঠেন এক অদম্য যুবকের সমতুল্য। তার আধুনিক ব্যবসায়িক চিন্তাধারা এশিয় অঞ্চলে হিটাচি পণ্য ও সেবার  বাজারের ব্যাপক প্রসার ঘটাবে বলে আশা করা যাচ্ছে। বাংলাদেশে হিটাচি কোম্পানির ডিস্ট্রিবিউটর ইউনিক বিজনেস সিস্টেম লিমিটেড কর্তৃক আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে মাসিক টেকওয়ার্ল্ড পত্রিকার প্রতিনিধির জনাব চেন টেক ব্যঙ্ক এর সাক্ষাৎকার গ্রহণের সুযোগ হয়, যার উল্লেখযোগ্য অংশটুকু এখানে তুলে ধরা হলোঃ

প্রশ্নঃ সাধারণ