ভক্তদের উদ্দীপনা যোগাতে উবার নিয়ে এলো আইসিসি পুরুষ ক্রিকেট বিশ্বকাপের অ্যান্থেম

প্রকাশঃ ০৩:৫৪ মিঃ, মে ৩০, ২০১৯
Card image cap

ক্রিকেটের একাত্মতার মনোভাবকে ছড়িয়ে দিতে ৫ জন বিশ্বসেরা শিল্পী গাইলেন ওয়ে-ও, ওয়ে-ও ।

টেকওয়ার্ল্ড প্রতিনিধি:

বিশ্বের বৃহত্তম ব্যক্তিগত পরিবহন কোম্পানি উবার, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) -এর সাথে তাদের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদারিত্বের অংশ হিসেবে বিশ্বব্যাপী ক্রিকেটপ্রেমীদের জন্য নিয়ে এলো এবারের আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ –এর প্রথম গান ওয়ে-ও, ওয়ে-ও। অ্যান্থেমটি বহুল প্রতীক্ষিত পুরুষ ক্রিকেট বিশ্বকাপের এই আসরে ক্রিকেটপ্রেমীদের মধ্যে উদ্দীপনা যোগাবে।

রিদমিক এই অ্যান্থেমটি বিভিন্ন সংস্কৃতির মিশ্রণের মাধ্যমে তৈরি করা হয়েছে। অ্যান্থেমটি লিখেছেন সোনাল দাবরাল (ওগিলভি) এবং কম্পোজড, প্রডিউসড ও সংযোজিত করেছেন মাইকেল (মাইকি) ম্যাকলেইরি। বিশ্বব্যাপী সত্যিকার একাত্মতার প্রচারের জন্য পাঁচটি অংশগ্রহণকারী দেশের প্রশংসিত শিল্পীদের অংশগ্রহণে ওয়ে-ও, ওয়ে-ও অ্যান্থেমটি গাওয়ানো হয়েছে। অ্যান্থেমটির গীতিকার জনপ্রিয় ভারতীয় ব্যান্ড সানামসহ, যারা ক্ল্যাসিকাল বলিউড সঙ্গীত নিয়ে কাজ করেন, জ্যামিয়েল (জ্যামাইকা), ক্যাথরিন টেইলর ডাওসন (যুক্তরাজ্য), সিম্বা ডায়ালো (নিউজিল্যান্ড) এবং চৈইর গ্রুপ - খৈলিতশা ইউনাইটেড মাম্বাজো (দক্ষিণ আফ্রিকা)র মত বিশ্বসেরা বরেণ্য শিল্পীদেরকে যুক্ত করেছেন।

এই গানটি পুরো টুর্নামেন্টব্যাপী খেলার বিরতিতে স্টেডিয়ামের স্ক্রীনে প্লে করা হবে।

খেলাধুলা ও সংগীত সবসময়ই শক্তিশালী আবেগ জাগ্রত করে এবং বিশ্বব্যাপী ঐক্য ও একাত্মতাকে উৎসাহ দেয়। উবারের ‘ওয়ে-ও ওয়ে-ও’ ক্রিকেট বিশ্বকাপ উদযাপন করার এই প্যাশনকে প্রজ্বলিত করবে এবং ভক্তদের তাদের পছন্দের দলের সাথে আনন্দ উপভোগ করতে সাহায্য করবে।

উবারের চিফ ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস অফিসার, ব্রুকস এন্টুইস্টেল বলেন, “মানুষকে একত্রিত করে সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে এবং একটি বাটন ক্লিকের মাধ্যমে পছন্দের খাবার তাদের পরিবার ও বন্ধু-বান্ধবের সাথে ভাগ করে নেয়ার সুযোগ করে দিতে উবার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। বাধা দূর করার এই দৃষ্টিভঙ্গির সাথে আমাদের প্রথম অ্যান্থেমটি ক্রিকেটের একাত্মতাকে উদযাপন করে। অ্যান্থেমটি ভৌগোলিক বাধা অতিক্রম করে ভক্তদের তাদের প্রিয় দল ও খেলোয়াড়দের প্রতি ভালবাসা প্রকাশ করার জন্য শক্তিশালী ভাষা দিবে।”

নিউজিল্যান্ডের সিম্বা ডায়ালো এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সম্পর্কে উছ্বসিত হয়ে বলেন, “সারা বিশ্বের প্রতিভাবান সুরকার ও গায়কদের সাথে সংহতি ও একাত্মতাকে উৎসাহিত করা এই সুরেলা যাত্রাটি অনেক মজার ছিল। আমি বিশ্বাস করি এই অ্যান্থেমটি সত্যিই সমস্ত ক্রিকেটীয় জাতিকে উদযাপনের জন্য কাছে আনবে এবং খেলার আনন্দ সবার মাঝে ছড়িয়ে দেবে।”

দক্ষিণ আফ্রিকার খৈলিতশা ইউনাইটেড মাম্বাজো বলেন, “ক্রিকেটে অংশগ্রহণকারী দেশ এবং এর বাইরেও প্রকাশিত হবে এমন একটি গানে আফ্রিকান ভয়েস ও জাতিকে প্রতিনিধিত্ব করতে পারা আমাদের জন্য একটি বড় সম্মান। প্রতিভাবান গায়ক এবং সুরকার,যারা অ্যান্থেমটি এত সুন্দরভাবে উজ্জীবিত করেছেন, তাদের সাথে কাজ করা আমাদের জন্য একটি অবিশ্বাস্য অভিজ্ঞতা ছিল। আমরা এটি শুনতে এবং চ্যাম্পিয়নশিপের সময় প্রচারিত হতে দেখার জন্য আগ্রহের সাথে অপেক্ষা করছি। ধন্যবাদ উবার, আমাদের ওয়ে-ও প্রচারের জন্য।”

ক্যাথেরিন টেইলর ডাওসন, যুক্তরাজ্য বলেন, “ক্রিকেট বিশ্বকাপ বিশ্বের সবচেয়ে বহুল প্রতীক্ষিত ক্রীড়া ইভেন্ট হিসেবে ইংল্যান্ডের অত্যন্ত প্রিয় খেলা। আমি সারা বিশ্ব জুড়ে গায়কদের সাথে এই সিগনেচার অ্যান্থেমটি গাওয়ার মাধ্যমে এই উদ্দীপনাময় প্রোজেক্টের অংশ হতে পেরে আনন্দিত। এটি একটি বিস্ময়কর ইতিবাচক বার্তা। আমি নিশ্চিত, এটি বিশ্বব্যাপী অনুরণিত হবে।”

আন্তর্জাতিক রেগা আর্টিস্ট জ্যামিয়েল (জ্যামাইকা) বলেন, “আইসিসি, উবার এবং ক্রিকেটপ্রেমী দেশগুলোর অনেক প্রতিভাবান আন্তর্জাতিক শিল্পীদের সাথে একত্রে ক্রিকেট বিশ্বকাপের এই প্রথম অ্যান্থেমটি তৈরি করা আমার জন্য অনেক সম্মানের। ক্রিকেট খেলার সময় বিভিন্ন জাতির মধ্যকার ঐক্য ভালোলাগার কারণে বিশ্বকাপ সবসময় আমার জীবনের সুন্ধর স্মৃতিগুলোই মনে করিয়ে দেয়। এটা চিন্তা করে আরও ভালো লাগছে যে এই গানটি সারা বিশ্বের ক্রিকেটপ্রেমীদের জীবনে গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব ফেলবে। আমি আশা করি, এই অ্যান্থেমটির মাধ্যমে ভক্তরা সংযুক্ত ও ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাদের নিজেদের পছন্দের খেলা উপভোগ করবেন।”

সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ১২০৭ বার