অনুষ্ঠিত হলো ডিজিটাল সামিট ২০১৯

প্রকাশঃ ১০:৪৩ মিঃ, নভেম্বর ৩, ২০১৯
Card image cap


টেকওয়ার্ল্ড প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরামের উদ্যোগে আয়োজিত হলো ষষ্ঠ ডিজিটাল সামিট। মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের পরিবেশনায় আজ অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে উপস্থিত ছিল দেশের গণ্যমান্য ডিজিটাল প্রফেশনালসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রের প্রায় ৫শ’ অতিথি। 

এ বছরের সম্মেলনের প্রতিপাদ্য ছিল ‘ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন ফর পিপল’। এডিএ (অ্যানালিটিক্স - ডিজিটাল - অ্যাডভারটাইসিং) এবং দ্য ডেইলি স্টারের সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানটি রাজধানীর লা মেরিডিয়ান ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলন শেষে সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হয় ডিজিটাল মার্কেটিং অ্যাওয়ার্ডের তৃতীয় আসর। যেখানে ১৬টি বিভাগে এ বছরের শ্রেষ্ঠ ডিজিটাল ক্যাম্পেইনগুলোকে পুরস্কৃত করা হয়। ২০১৯ সাল থেকে শুরু হওয়া এ সম্মেলনটি দেশের ডিজিটাল মার্কেটিং প্রফেশনালদের তথ্য ও অভিজ্ঞতা বিনিময়ের জন্য সর্বোচ্চ প্ল্যাটফর্ম হিসেবে সর্বজনবিদিত।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক শরিফুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘ডিজিটাল যুগে বসবাসকারীদের জন্য ডিজিটাল ধারণাই এখন মূখ্য ভূমিকা পালন করছে। আধুনিক বিপণনকারীরা তাদের ব্র্যান্ড তৈরির প্রতিটি কার্যকলাপের সাথে ডিজিটালের সমন্বয় ঘটানোর সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন। সেক্ষেত্রে, আমাদের অনুধাবন জরুরি যেনো এ নতুন প্রক্রিয়ার সবক্ষেত্রেই মানব সংযোগ ঘটে।’ 

ডিজিটাল সামিটের এবারের আসরে উপস্থিত ছিলেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ৩ জন বিশিষ্ট বক্তা। যারা ডিজিটাল মার্কেটিং ক্ষেত্রের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো নিয়ে মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। এছাড়াও, আলোচনায় ছিলেন দেশীয় বিশেষজ্ঞগণ যারা দেশের ডিজিটাল মার্কেটিং –এর বর্তমান পরিস্থিতি ও ভবিষ্যৎ রূপরেখার ওপর আলোকপাত করেন। একাধিক প্যানেল আলোচনা, ব্রেকআউট সেশন, ইনসাইট সেশন এবং কেইস স্টাডি প্রেজেন্টেশন সেশনগুলো সামিটের পুরো পরিবেশকে একদিনের পাঠশালার রূপ প্রদান করে। 

সম্মেলনে মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন এডিকে’র গ্লোবাল কনসালট্যান্ট এবং কগনেশিয়া ট্যালেন্টের চিফ ক্রিয়েটিভ অফিসার ও এক্সিকিউটিভ অ্যাডভাইজার রব শেরলক; এডিএ (আনালিটিক্স - ডাটা - অ্যাডভারটাইজিং) মালয়েশিয়ার বিজনেস ইনসাইট হেড ভিত্তরিও ফুরলান এবং উইঅ্যাডডু’র ম্যানাজিং পার্টনার প্রতীক বসু।

প্যানেল আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন অ্যাডকমের ম্যানেজিং ডিরেক্টর নাজিম ফারহান চৌধুরী; ব্র্যাক ও ব্র্যাক ইন্টারন্যাশনালের কমিউনিকেশন ও আউটরিচ ডিরেক্টর মৌটুসি কবির; রেকিট বেঙ্কিজার বাংলাদেশ লি.- এর মার্কেটিং ডিরেক্টর নুসরাত জাহান; মার্কেটিং সোসাইটি অব বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট আশরাফ বিন তাজ; দ্য ডেইলি স্টারের হেড অব মার্কেটিং তাজদিন হাসান; ইউনিলিভার বাংলাদেশ লি.- এর ফেব্রিক সল্যুশন ক্যাটাগরি হেড জিশান রহমান; প্রাইম ব্যাংকের এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ব্র্যান্ড অ্যান্ড কমিউনিকেশন হেড নাজমুল করিম চৌধুরী; গ্রামীণফোনের ব্র্যান্ড এবং ডিজিটাল মার্কেটিং- এর ডেপুটি ডিরেকটর নাফিস আনোয়ার চৌধুরী; কোকা- কোলা বাংলাদেশের কান্ট্রি মার্কেটিং ম্যানেজ্রা মোয়াসসের আহমেদ; ম্যাকমের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার রাবেথ খান; এয়ারটেলের ব্র্যান্ড অ্যান্ড ডিজিটাল- এর জেনারেল ম্যানেজার তাহাসিনা রাফা; আইকিউআই গ্লোবাল মালয়েশিয়ার ডিজিটাল মার্কেটিং ম্যানেজার কাজি নওরিদ আমিন; ব্র্যান্ড ও মার্কেটিং প্রফেশনাল শাহরিয়ার আমিন; এক্স -এর চিফ অপারেটিং অফিসার দ্রাবির আলম; এফসিবি বিটপি’র চিফ অপারেটিং অফিসার সালাহউদ্দিন শাহেদ; বাংলালিংক ডিজিটাল কমিউনিকেশনস লিমিটেডের মার্কেটিং অ্যান্ড এনগেজমেন্ট হেড নেয়ামুল মুকিত আহমেদ; টপ অব মাইন্ডের মিডিয়া ডিরেক্টর সায়েদা উম্মে সালমা; এডিএ (অ্যানালিটিক্স - ডাটা - অ্যাডভারটাইসিং) বাংলাদেশের ক্লায়েন্ট লিডারশিপ ডিরেক্টর মুনাফ মজিব চৌধুরী; ঢাকা ইউনিভার্সিটির ব্যবসায় প্রশাসন ইন্সটিটিউটের ডিরেক্টর ড. সাঈদ ফারহাত আনোয়ার; মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর আসিফ ইকবাল; গ্রামীনফোনের 


ডেপুটি চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ইয়াসির আজমান; ব্র্যাক-আড়ং এর চিফ অপারেটিং অফিসার মোহাম্মদ আশরাফুল আলম সিএসসিএম; বাংলালিংক-এর ব্র্যান্ডস এবং কমিউনিকেশনস ডিরেক্টর উরফি আহমাদ; সহজের প্রতিষ্ঠাতা ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর মালিহা কাদির এবং উইঅ্যাডডু’র ম্যানেজিং পার্টনার প্রতীক বসু।

ইনসাইট সেশনগুলো পরিচালনা করেন এস্কিমি সাউথ এশিয়ার ম্যানেজিং ডিরেক্টর লুতফি চৌধুরী; এডিএ (অ্যানালিটিক্স - ডাটা - অ্যাডভারটাইসিং) বাংলাদেশ- এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর শিহাব আহমাদ এবং চ্যাটলিডস- এর চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ও ওয়েব্যাবল ডিজিটালের কো-ফাউন্ডার শাদাব মাহবুব। কেস স্টাডি প্রেজেন্টেশন সেশনগুলো পরিচালনা করেন এশিয়াটিক মাইন্ডশেয়ার লি.- এর এক্সেকিউটিভ ডিরেক্টর তুসনুভা আহমেদ টিনা ও অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিজিটাল ডিরেক্টর কাজী হাসান ফেরদৌস; গ্রামীনফোন লি.- এর জেনারেল ম্যানেজার ও হেড অব ডিজিটাল মার্কেটিং শাহরিয়ার মো. শাহাবুদ্দিন; গ্রে বাংলাদেশ- এর সিনিয়র ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর এম আকরুম হোসেন এবং এভিপি ও স্ট্র্যাটেজিক প্ল্যানিং লিড বিটপি দাস গুপ্ত; ডেলিগ্রামের ফাউন্ডার ও চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ওয়াইজ রহিম; ব্র্যাক-আড়ং- এর মার্কেটিং ম্যানেজার সাঈদ রেদওয়ানুর রহমান এবং অ্যানালাইজেনের ম্যান অব স্টিল রিসালাত সিদ্দিক। এছাড়াও, ছিল অ্যাপ্লাইড বিজনেস ইনিশিয়েটিভের ফাউন্ডার ও চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার তানভির ফারুক একটি ব্রেকআউট সেশন পরিচালনা করেন। 

দিনব্যপী এ সম্মেলন শেষে সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হয় দেশের ডিজিটাল মার্কেটিং খাতে প্রদত্ত একমাত্র সম্মাননা তৃতীয় ডিজিটাল মার্কেটিং অ্যাওয়ার্ড। অনুষ্ঠানটিতে এ শিল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট ৫শ’ জন অতিথি অংশগ্রহণ করেন। এবারের আসরে ১৬টি ক্যাটাগরির অধীনে মোট ৭৯টি ডিজিটাল ক্যাম্পেইনকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। এ বছরের ডিজিটাল মার্কেটিং অ্যাওয়ার্ডের জন্য সর্বমোট ৫শ’টিরও বেশি মনোনয়নপত্র জমা পরে। গ্রাঁপ্রি, গোল্ড, সিলভার এবং ব্রোঞ্জ- এই ৪টি র‌্যাাংকের অধীনে অ্যাওয়ার্ডগুলো প্রদান করা হয়। 

বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম কর্তৃক আয়োজিত এবং মেঘনা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের পরিবেশনায় অনুষ্ঠিত এ আয়োজনটির সহযোগিতায় ছিল এডিএ ও দ্য ডেইলি স্টার। অনুষ্ঠানুটি আয়োজনে আরও সাথে ছিলো এস্কিমি; স্ট্র্যাটেজিক পার্টনার- বাংলাদেশ ক্রিয়েটিভ ফোরাম; নলেজ পার্টনার- এমএসবি; ইভেন্ট পার্টনার- লা মেরিডিয়েন ঢাকা; লাইফস্টাইল পার্টনার- অ্যাডভান্সড ডেভেলপমেন্ট টেকনোলজিস; টেকনোলজি পার্টনার- আমরা; ডিজিটাল পার্টনার- অ্যাডভান্সড বিজনেস ইনিশিয়েটিভস; ভিজ্যুয়াল পার্টনার- আতোশ এবং পিআর পার্টনার- ব্যাকপেজ পিআর।

সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ২৪৫ বার

সম্পর্কিত পোস্ট