শাওমির আকর্ষণীয় ঈদ অফার, প্রতিদিন ল্যাপটপ জেতার সুযোগ

প্রকাশঃ ০২:৩১ মিঃ, এপ্রিল ১৬, ২০২২
Card image cap


টেকওয়ার্ল্ড প্রতিনিধি:

ঈদের উৎসবমুখর পরিবেশকে আরও আনন্দময় করে তুলতে শাওমি বাংলাদেশ ঘোষণা করেছে স্মার্টফোন ও ট্যাব কেনায় আকর্ষণীয় ঈদ অফার ক্যাম্পেইন। 

এই ক্যাম্পেইন চলার সময় গ্রাহকরা শাওমির নির্দিষ্ট মডেলের স্মার্টফোন ও ট্যাব কিনে প্রতিদিন শাওমির ল্যাপটপ, নিশ্চিত ক্যাশব্যাক, ইএমআই সুবিধা, ডেটা ব্যান্ডেল প্যাক এবং শাওমি ইকো প্রোডাক্ট ও স্মার্টফোন জেতার সুযোগ পাবেন। 

শাওমি বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার জিয়াউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘ঈদের এই উৎসবমুখর সময়ে শাওমি বাংলাদেশ আগেই নিয়ে এসেছে ঈদের খুশি। এই ঈদ ক্যাম্পেইনে, শাওমির ফ্যানরা সেরা সব স্মার্টফোন ও ট্যাব কেনায় পাচ্ছেন আকর্ষণীয় অফার। তারা প্রতিদিন ল্যাপটপসহ  নানা লোভনীয় উপহার জেতার সুযোগ পাচ্ছেন। এমনকি, নির্দিষ্ট মডেলের শাওমি স্মার্টফোন কিনলে সুদবিহীন ইএমআই সুবিধা পাওয়া যাবে।’

এই ঈদ অফার পেতে যেসব ডিভাইস কিনতে হবে সেগুলো হলো: শাওমি ইলেভেন-টি প্রো, শাওমি ইলেভেন-টি, শাওমি ১১আই হাইপারচার্জ ফাইভজি, শাওমি ১১ লাইট, শাওমি প্যাড ৫, রেডমি নোট ১০ প্রো ১০৮ এমপি, রেডমি নোট ১১এস, রেডমি নোট ১১, রেডমি ১০ (২০২২) এবং রেডমি ৯এ 

প্রভৃতি। 

ঈদ অফারের আওতায় ক্রেতারা ইএমআই-এর মাধ্যমে নির্দিষ্ট মডেলের শাওমি স্মার্টফোন কিনলে ২০০০ টাকা পর্যন্ত ক্যাশব্যাক পাবেন।

পাশাপাশি ক্রেতারা জেতার সুযোগ পাবেন রেডমি স্মার্টফোন, মি স্মার্ট ব্যান্ড ৬, রেডমি ইয়ারফোন এবং রেডমি বেসিক এয়ারবাডস। দৈবচয়নের ভিত্তিতে বিজয়ী নির্ধারণ করা হবে। ক্রেতারা অফারে ১৫ জিবি পর্যন্ত ডেটা বান্ডেলও জেতার সুযোগ পাবেন। 

ঈদ অফারটি ঈদের আগের দিন পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে। এই অফার পেতে ক্রেতাদের অবশ্যই দেশের শাওমির অথরাইজড স্টোর থেকে নির্দিষ্ট ডিভাইস কিনতে হবে।



------------


শাওমি সম্পর্কে : 

শাওমি কর্পোরেশন প্রতিষ্ঠিত হয়েছে ২০১০ সালের এপ্রিল মাসে এবং ২০১৮ সালের ৯ জুলাই (১৮১০.এইচকে) হংকং স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান বোর্ডে তালিকাভুক্ত হয়। শাওমি একটি কনজ্যুমার ইলেকট্রনিক্স এবং স্মার্টফোনসহ স্মার্ট ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানি; যার মূল হলো স্মার্ট হার্ডওয়্যার এবং ইন্টারনেট অব থিংকস বা আইওটি প্লাটফর্ম। 

আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে, 'ব্যবহারকারীদের সঙ্গে বন্ধুত্ব এবং তাদের হৃদয়ে সর্বোত্তম কোম্পানি' হিসেবে জায়গা করে নেওয়া; শাওমির ক্রমাগত উদ্ভাবন, ব্যবহারকারীদের উচ্চ অভিজ্ঞতা এবং পরিচালন দক্ষতা। কোম্পানিটি সম্প্রতি বিশ্বের সেরা সব উদ্ভাবনী পণ্য এনেছে, যা ‘অনেস্ট প্রাইস’ বা সাশ্রয়ী মূল্যে জীবনকে আরও সহজ করে তোলে। 

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন কোম্পানি শাওমি। কোম্পানিটির প্রতিষ্ঠা করেছে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় কনজ্যুমার এআইওটি প্লাটফর্ম। ২০২১ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত প্ল্যাটফর্মটিতে স্মার্টফোন ও ল্যাপটপ ছাড়াই ৩৭৪.৫ মিলিয়নের বেশি ডিভাইস সংযুক্ত রয়েছে। বর্তমানে বিশ্বের ১০০টিরও বেশি দেশ ও অঞ্চলে শাওমির পণ্যগুলো ব্যবহার হচ্ছে। ২০২১ সালের আগস্টে কোম্পানিটি ফরচুন গ্লোবালের সেরা ৫০০ তালিকায় তৃতীয়বারের মতো স্থান করে নিয়েছে, সেই তালিকায় শাওমির অবস্থান ৩৩৮তম। যা গত বছরের তুলনায় ৮৪ ধাপ ওপরে। 

শাওমি হ্যাং সেন সূচক, হ্যাং সেন চীন এন্টারপ্রাইজ সূচক, হ্যাং সেন টেক সূচক এবং হ্যাং সেন চীন সূচকে ৫০তম।

শাওমি সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন: http://blog.mi.com/en/

বিস্তারিত জানতে

সুমন সাহা

+৮৮০১৭১৬২৮৩৩২৮

sumansaha@xiaomi.com


সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ৯৩ বার