বঙ্গমাতার ৯২ তম জন্মদিন পালনের মাধ্যমে যাত্রা শুরু নারী উদ্যোক্তা সংগঠন ফেমনাসের

প্রকাশঃ ১১:২২ মিঃ, আগস্ট ১০, ২০২২
Card image cap

স্বাধীনতার স্বপ্নের সারথি বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ‘অনুপ্রেরণায় তুমি’ শীর্ষক এক আলোচনা ও নারী উদ্যোক্তা সন্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ফজিলাতুন্নেছা মুজিব নারী উদ্যোক্তা সংগঠন (ফেমনাস)। রাজধানীর আগারগাওঁ অনুষ্ঠিত এই আয়োজনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক উদ্ভোধন ঘোষণা করা হয় ফেমনাসের।

টেকওয়ার্ল্ড প্রতিনিধি:

স্বাধীনতার স্বপ্নের সারথি বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ‘অনুপ্রেরণায় তুমি’ শীর্ষক এক আলোচনা ও নারী উদ্যোক্তা সন্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ফজিলাতুন্নেছা মুজিব নারী উদ্যোক্তা সংগঠন (ফেমনাস)। রাজধানীর আগারগাওঁ অনুষ্ঠিত এই আয়োজনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক উদ্ভোধন ঘোষণা করা হয় ফেমনাসের। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাবেক সচিব হোসনে আরা বেগমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন এসএমই ফাইন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মফিজুর রহমান এবং বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি ডিভিশনের সাবেক অতিরিক্ত সচিব রীনা পারভীন এবং এসএমই ফাউন্ডেশনের জেনারেল ম্যানেজার ফারজানা খান। এছাড়াও সন্মানিত অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উইমেন ইন ডিজিটালের সিইও আছিয়া নীলা, উদ্যোক্তা উন্নয়ন ফোরাম এসইপি এর সভাপতি কাজী ইমরান, ই-ক্যাবের সহ প্রতিষ্ঠাতা মীর শাহেদ আলী, ই-ক্যাবের ইনভেষ্ট স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান ফারহা মাহমুদ তৃনা, ইপল্লীর সিইও জুনায়েদ আহমেদ, আইডিওলাইজারের সিইও ডায়না জামান  এবং তারকা রন্ধনশিল্পী ও মিডিয়া ব্যাক্তিত্ব আফরোজা নাজনীন সুমি। অনুষ্ঠানে ফেমনাসের পক্ষ থেকে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বঙ্গমাতার ৯২ তম জন্মদিন উদযাপন কমিটির আহবায়ক ও টেকওয়ার্ল্ড বাংলাদেশের প্রকাশক সম্পাদক নাজনীন নাহার।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মফিজুর রহমান বলেন- বঙ্গমাতা আমাদের জন্য অনুপ্রেরণা । তার অবদানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ফেমনাসের এই যাত্রা আশাব্যাঞ্জক, কারণ আমাদের নারী উদ্যোক্তাদের এগিয়ে যেতে হলে দক্ষতা ও সরকারীভাবে গৃহিত নীতিগত উন্নয়নের পাশাপাশি অনুপ্রেরণারও প্রয়োজন আছে। আমাদের ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের যদি সঠিকভাবে গাইড করা যায় তাহলে দেশের উন্নয়নে তারা ইতিবাচক ভুমিকা পালন করবেন। তাই তাদের এগিয়ে যাওয়ার জন্য এমন একটা প্লাটফর্ম দরকার যেখানে তারা নীতিগত সহায়তাসহ একটি পরিপূর্ণ গাইড লাইনও পাবে। আমরা আশা করব নারী উদ্যোক্তা উন্নয়নে ফেমনাস যেন বঙ্গমাতার নামের মর্যাদা রাখবে এবং উদ্যোক্তা উন্নয়নে তেমনি একটা নেটওয়ার্কিং প্লাটফর্মও গড়ে তুলবে। এই কার্যক্রমে ফেমনাসের সাথে কাজ করবে এসএমই ফাউন্ডেশন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রীনা পারভীন বলেন-বঙ্গমাতার মানুষকে ভালোবাসা ও  সহযোগিতা করার যেই মানসিকতা ছিল তা বিরল। তাঁর জীবন থেকে অনুপ্রাণীত হয়ে নারী উদ্যোক্তা সংগঠেনের সদস্যদের পারস্পারিক সহযোগিতা বৃদ্ধির ওপরও গুরুত্ব দিতে হবে। 

বক্তব্যে ফারজানা খান বলেন- আমাদের নারী উদ্যোক্তারা অনেক দুর এগিয়েছে।  এবার তাদেরকে নিজের দক্ষতা উন্নয়ন ও পণ্যের গুনগত মানের দিকে নজর দিতে হবে, বিশেষ করে যারা খাবার নিয়ে কাজ করেন। পাশাপাশি যেকোন উদ্যোক্তাকেই তার ব্যবসায়িক সততার দিকেও মনোযোগী হতে হবে। বঙ্গমাতার আদর্শকে ধারণ করতে পারলে যেকোন নারী উদ্যোক্তাই অনুপ্রাণীত করতে পারবেন অন্য উদ্যোক্তাকেও।

অনুষ্ঠানে লামিয়া প্রিন্টিং এন্ড ব্লকের স্বত্ত্বাধিকারী শাহনাজ আক্তারকে  প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্যেও ক্ষুদ্র উদ্যোগের মাধ্যমে শতাধিক মানুষকে কাজের সুযোগ করে দেয়ায় অবদান রাখার জন্য বঙ্গমাতা নারী উদ্যোক্তা সন্মাননা ২০২২ প্রদান করা হয়। এছাড়াও সন্মাননা দেয়া হয় ক্ষুদ্র মুলধন নিয়ে উদ্যোক্তা জীবনে হোচট খেয়ে ঘুরে দাড়ানো সফল নারী উদ্যাক্তা জেসমিন আক্তার চৌধুরীকেও। এই দুই উদ্যোক্তাই তাদের পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি।

সভাপতির বক্তব্যে হোসনে আরা বেগম বলেন- জাতির জনক বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতার স্বপ্ন বাস্তবায়নের অন্যতম স্বপ্ন সারথি ছিলেন বঙ্গমাতা । মুক্তিযুদ্ধকালে মুক্তিযোদ্ধাদের বিভিন্নভাবে সহযোগিতা এবং অনুপ্রাণীত করেছেন বঙ্গমাতা। যুদ্বপরবর্তী সময়েও সাহসের সাথে মা হয়ে আগলেছেন বীরঙ্গনাদের। বঙ্গমাতার এই সহযোগিতামূলক মনোভাব থেকে  অনুপ্রাণীত হয়েই যাত্রা শুরু ফেমনাসের (Fazilatunnessa Mujib Nari Udokta Songothon, FAMNUS). নারীউদ্যোক্তা ও উদ্যোক্তা সংগঠনগুলোর একটি নেটওয়ার্ক হিসাবে আত্মপ্রকাশ করা ফেমনাসের মূল উদ্দেশ্য ক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তাদের ব্যাবসায়িক সমস্যার নীতিগত উন্নয়নে কাজ করা পাশাপাশি স্বপ্ন সারথি হয়ে তাদের স্বপ্ন বাস্তবায়নে সার্বিক সহায়তা প্রদান করা। একাজে সংগঠন ফেমনাসের একজন প্রতিষ্ঠাতা হিসাবে তিনি সবার সহযোগিতা আশা করেন।

অনুষ্ঠানে ক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তাদের বিভিন্ন সমস্যা ও সম্ভাবনা নিয়ে কথা বলেন আছিয়া নীলা , ডায়না জামান , মীর শাহেদ আলীসহ অন্য অতিথিরা। অনুষ্ঠান শেষে এক পণ্যপ্রদর্শনীর আয়োজন করা হয় যেখানে অংশগ্রহণ করেন ৩০-এরও অধিক নারী উদ্যোক্তা।


সংবাদটি পঠিত হয়েছেঃ ১৩৪ বার

সম্পর্কিত পোস্ট